আসসালামু আলাইকুম। পরিবারের সকলকে নিয়ে নিরাপদে থাকুন ** বিএন স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের টিউশন ফিস জমা দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো **প্রতিদিন ১০টা-১টা পর্যন্ত কলেজের অফিসে ফিস জমা দেয়া যাবে ** বাসে আসা-যাওয়া করা শিক্ষার্থী তার বাস ভাড়ার অর্ধেক(৫০%) জমা দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো ** সকল শিক্ষা বোর্ডের এস এস সি রেজাল্ট ২০২০, ২১ মে বেলা ১১ টার পর প্রকাশ করা হতে পারে এবং একাদশ শ্রেণীর ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে|

ক্যালেন্ডার

There are no upcoming events.

নোটিশ

ভর্তি ও প্রমোশনের সাধারণ নিয়ম

১। বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজের ভর্তি ও প্রমোশনের নীতি শিক্ষা মন্ত্রণালায়, শিক্ষাবোর্ড এবং নৌ-সদর দপ্তর বা স্থানীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনার অধীনে প্রাপ্ত নীতি অনুযায়ী পরিচালিত হয়ে আসছে। এ কলেজে যে নিয়ম চালু রয়েছে তা নিচে দেয়া হল।

ক। ভর্তির সাধারণ নিয়ম:
(১) প্রথম শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত
প্রতি শিক্ষা বর্ষের শুরুতে সভাপতির অনুমোদনক্রমে কলেজে ভার্তির জন্য প্রার্থীদের একটা নির্ধারিত ভর্তি পরিফক্ষা নেয়া হয়। উত্তীর্ণ হলে প্রার্থীকে সরাসরি কাঙ্ক্ষিত শ্রেণীতে ভর্তি করা হয় এবং অনুত্তির্ণ হলে কর্তৃপক্ষের অনুমতি ও অযযযভিভাবকের সম্মতিক্রমে নিম্নবর্তী শ্রেণিতে ভর্তির অবকাশ থাকে।
(২) একাদশ শ্রেণিতে বোর্ড ও শিক্ষা মন্ত্রানালয়ের নির্ধারিত নীতিমালা অনুযায়ী জিপিএ এর ভিত্তিতে ভর্তি করা হয়।

খ। অতি মেধাবী সিভিল শিক্ষার্থীদের জন্য :
(১) কলেজের শিক্ষার মান উন্নয়নকল্পে (প্রথম থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত) অতি মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য পুরো বছর ভর্তির ক্ষেত্র খলা থাকে। তবে ৭৫% নম্বর না পেলে তাদের অতি মেধাবী হিসেবে ধরা হয় না।
(২) কলেজ শাখার ক্ষেত্রে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাস বোর্ড সমুহের পুর্বানুমতিক্রমে ছাড়পত্রের মাধ্যমে ভর্তি করা হয়।

২। প্রমোশনের বিষয় বাংলাদেশ নৌবাহিনী স্কুল এন্ড কলেজ, খুলনার কয়েকটি কলেজ/বিদ্যালয় এবং ঢাকার কয়েকটি ভাল কলেজ/বিদ্যালয়ের সাধারন নিয়মের সাথে মিল রেখে একটি সাধারন নীতিমালা তৈরি করেছে। নিচে তার বিবরণ দেয়া হল।

(ক) প্রমোশনের সাধারন নিয়ম:
১ম থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত পাশ নম্বর ৫০% এবং ৬ষ্ঠ ১০ শ্রেণী পর্যন্ত ৪০% এবং একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পাশ নম্বর ৩৩%। যদি কোন ছাত্র ১ বিষয়ে নুন্যতম ২৫ নম্বর পেয়ে অকৃতকার্য হয় এবং তার শ্রেণীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য গড় নম্বর ৫০% অথবা ৪০% থাকে তবে তাকে পরবর্তি শ্রেণীতে অভিভাবকের অঙ্গিকার প্রদান সাপেক্ষে বিবেচনায় উন্নতি করা হয়। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে শিক্ষক শিক্ষিকা মন্ডলীর মিলিত সিদ্ধান্ত ও সুপারিশসহ সাভাপতি মহোদয়ের অনুমোদনক্রমে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহনের অবকাশ রয়েছে।